Breaking News

ভারত-পাকিস্তান মহারণের আগে ফের ভাইরাল ‘মারো মুঝে মারো’ বয়

‘ও ভাই, মারো মুঝে মারো…’ এই লাইনটির সঙ্গে নেট নাগরিকরা সকলেই পরিচিত। ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে ভারতের কাছে পাকিস্তানের হারের পর ভাইরাল হয়েছিল এই ভিডিয়োটি। পাকিস্তানি ভক্ত মোমিন সাকিবের সেই দুঃখের ভিডিয়ো মিম আকারে ছড়িয়ে পড়েছিল সব জায়গায়। টি-২০ বিশ্বকাপের মূলপর্ব শুরু হওয়ার আগে আরও একবার তিনি সামনে এলেন।

Advertisement

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের কাউন্টডাউন শুরু হয়ে গেছে। রবিবার মহারণ। উত্তেজনায় ফুটছেন ক্রিকেট সমর্থকরা। এই পরিস্থিতিতে শান্ত থাকতে পারছেন না। বর্তমানে লন্ডনের বাসিন্দা পাক নাগরিক মোমিন একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন। ওই ভিডিয়োতে তিনি বলেন, ‘আপনারা কি প্রস্তুত ভারত পাকিস্তান ম্যাচ দেখতে? দুটো তো ম্যাচ। একটা ভারত-পাকিস্তান আর অপরটা আমির খানের লগান চলচ্চিত্রের ম্যাচটা। মনে হয়, ২০১৯ সালের ম্যাচটা গতকালই শেষ হয়েছে। সময় বুঝতেই পারেনি। এই ম্যাচে জয়টা পাকিস্তানের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

২০১৯ সালে ভারতের কাছে হারের পর ভেঙে পড়েছিলেন পাকিস্তানি সমর্থকরা। সেইরকমই এক সমর্থক ছিলেন মোমিন। তাঁকে মাঠের বাইরে বলতে শোনা যায় পাকিস্তান প্লেয়াররা ম্যাচের আগে বার্গার খেয়েছিল। সমর্থকদের আবেগ বোঝেনি। তাঁর সেই ভিডিও আজও জনপ্রিয়। মারো মুঝে মারো লাইনটা এখনও প্রায় প্রতিটা মিমে ব্যবহার করা হয়।

Advertisement

২৪ অক্টোবর ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের অভিযান শুরু করবে পাকিস্তান। দুটো প্রস্তুতি ম্যাচের মধ্যে একটিতে জয় ও অপরটিতে হারতে হয়েছে বাবর আজমদের। যা নিয়ে পাকিস্তানকে কটাক্ষ করেছেন সলমন বাট। তাঁর মতে, পাকিস্তান প্রস্তুতি ম্যাচকে ঠিকমত ব্যবহার করেনি। দলের সব প্লেয়ারকে সুযোগ দেয়নি। যা একটা বড় ভুল। পাকিস্তানের প্রথম একাদশ খেলানোর ঘটনাকে নিন্দা করে তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের প্রথম একাদশের প্লেয়াররা কি নিরাপত্তাহীনতায় ভোগে? ভারত সব প্লেয়ারকে সুযোগ দিয়েছে, যেখানে পাকিস্তান সুযোগ দিল না।’

অন্যদিকে প্রাক্তন পাক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক বিশ্বকাপে ভারতকে এগিয়ে রাখেন। তিনি বলেন, ‘উপমহাদেশীয় পিচে টি-২০ তে ভারত বরাবরই শক্তিশালী। IPL খেলায় ভারত অতিরিক্ত সুবিধা পাবে।’

Advertisement

অন্যদিকে বিশ্বকাপের দল ঘোষণার পর থেকেই একের পর এক বিতর্ক শুরু হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল নিয়ে। প্রথমে দল ঘোষণা হলেও সেখানে সিনিয়র কোনও প্লেয়ারকে রাখেনি নির্বাচকরা। যা নিয়ে নিন্দার মুখে পড়ে সিদ্ধান্ত। এরপর সরফরাজ আহমেদ, শোয়েব মালিক ও ফখর জামানকে সুযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু তাতেও সরফরাজের সংযুক্তি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কেউ কেউ।

Advertisement

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

ভিডিয়ো: কনে কর্তা সচিনের সাজ দেখে মজা করলেন যুবরাজ

সচিন তেন্ডুলকরকে ঐতিহ্যবাহী পোশাকে দেখা গিয়েছিল। বিয়ের আগে সচিন তেন্ডুলকরও ঐতিহ্যবাহী স্টাইলে মাথায় পাগড়ি বেঁধেছিলেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.