Breaking News
That interview of pacer worship is viral

পেসার ইবাদতের সেই সাক্ষাৎকার ভাইরাল, বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত (ভিডিও)

উইকেট নেওয়ার পর ‘স্যালুট’ ঠুকে দেন তিনি। এটিই তার উইকেটপ্রাপ্তির উদযাপন ভঙ্গি। এই বোলারের নাম ইবাদত হোসেন। ইবাদতের স্যালুট এখন ট্রেডমার্ক।

আর স্যালুটের পাশাপাশি তার ম্যাচপরবর্তী বক্তব্যও ভাইরাল এখন। বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হচ্ছে ইবাদতের সেই ইন্টারভিউ।
বুধবার বাংলাদেশ সময় ভোরে ইবাদত বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড টেস্টে চ্যাম্পিয়ন দল। আমরা যদি তাদের তাদের মাটিতে হারাতে পারি, আমাদের পরবর্তী প্রজন্মও হারাতে পার বে। এটিই ছিল মূল লক্ষ্য।

উইকেট শিকার করে ‘স্যালুট’ ঠোকার বিষয়ে এ পেসার বলেন, আমি বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সদস্য। জানি কীভাবে স্যালুট করতে হয়। ভলিবল থেকে ক্রিকেটে এসেছি। ক্রিকেট উপভোগ করছি। বাংলাদেশ দলকে প্রতিনিধিত্ব করার চেষ্টা করছি, বাংলাদেশ বিমানবাহিনীকেও।’

ইবাদতের এসব কথা হৃদয়ে গেঁথে গেছে বিশ্বজুড়ে ক্রিকেটভক্তদের। সোশ্যাল মিডিয়ায় তার সেই ইন্টারভিউয়ের ভিডিও সয়লাব এখন।

বোলিংয়ের মতো মুখের কথায়ও প্রশংসা কুড়াচ্ছেন ইবাদত।

ভিডিওটি টুইট করে জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো লিখেছে— ইবাদত হোসেনের চমৎকার একটি সাক্ষাৎকার! (বাহবা চিহ্ন)

সাক্ষাৎকারটি টুইট করেছে ভারতের গণমাধ্যম এনডিটিভির টুইটার পেজও। লিখেছে— ইবাদত হোসেন প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হন।

ক্রিকেট অন বিটি স্পোটর্স ক্যাপশনে লিখেছে— ইবাদত হোসেন এখন আমাদের প্রিয় ক্রিকেটার।  ম্যাচপরবর্তী সাক্ষাৎকারে তিনি যে বক্তব্য দিলেন, তা একজন পেশাদার ক্রীড়াবিদের মতোই।  তিনি বাংলাদেশ বিমানবাহিনীতে যোগদান করেন এবং ভলিবল খেলেন এবং এখন তিনি তার দেশকে একটি ঐতিহাসিক জয় এনে দিয়েছেন।

ক্রিক ক্রেইজি নিকস সেই ভিডিও পোস্ট করে লিখেছেন— এটি একটি দুর্দান্ত ম্যাচপরবর্তী সাক্ষাৎকার, দারুণ বল করার পর চমৎকার কথা বলেছেন ইবাদত হোসেন!

ইবাদত হোসেনের একটি বক্তব্যকেই কোড করেছে সার্কেল অব ক্রিকেট তাদের টুইটে।

ভিডিওটি পোস্ট করে তারা ক্যাপশনে লিখেছে— ‘আমরা এবার সবাই হাত তুলে প্রতিজ্ঞা করেছি, নিউজিল্যান্ডে আমরা জিতব। নিউজিল্যান্ড টেস্টে চ্যাম্পিয়ন দল। আমরা যদি তাদের তাদের মাটিতে হারাতে পারি, আমাদের পরবর্তী প্রজন্মও হারাতে পারবে। এটিই ছিল মূল লক্ষ্য।’

এইচটি স্পোর্টস দুই শব্দে লিখেছে— কি দুর্দান্ত এক সাক্ষাৎকার! (হাততালির চিহ্ন)।

সিভাম সিং নামে এক ভারতীয় ক্রিকেটভক্ত টুইটে লিখেছেন— এটি সহজেই অনুমেয় আর আমার দেখা সেরা ম্যাচপরবর্তী সাক্ষাৎকারগুলোর মধ্যে একটি।  নিউজিল্যান্ডের মাটিতে কিউইদের হারিয়ে লায়ন হার্টের পারফরম্যান্স বাংলাদেশের। ইবাদত হোসেনের জন্য শুভকামনা।

বল হাতে ইবাদত বলতে গেলে একাই গুঁড়িয়ে দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডকে। বাংলাদেশকে ঐতিহাসিক জয় এনে দেওয়ার কারণে প্রশংসা কুড়াচ্ছিলেন তিনি। তবে তার বন্দনা বেড়ে গেল ম্যাচসেরার পুরস্কার নিতে এসে বলা সাক্ষাৎকারে।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

কাউন্টিতে ৬৪ বলে সেঞ্চুরি প্রাক্তন CSK তারকার, দাপুটে হাফ-সেঞ্চুরি পাকিস্তানের রিজওয়ানের

টেস্টে ৩টি হাফ-সেঞ্চুরি রয়েছে, তবে কখনও তিন অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে ২২টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.