Breaking News
tamim-tell-why-not-make-joss

বাংলাদেশে কেন জস বাটলাররা তৈরি হয় না, ব্যাখ্যা করলেন তামিম

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে দানবীয় ফর্মে আছেন জস বাটলার। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে বাটলারের মতো ক্রিকেটারকে দলে চাইবে যে কেউ। কখনো ক্রিকেটীয় ব্যাকরণের বাইরে গিয়ে সারা মাঠে শট খেলা অথবা ক্রিকেটীয় ব্যাকরণ মেনে মাঠের চতুর্দিকে শট খেলা- সবই যেন সম্ভব বাটলারের ব্যাটে। বিধ্বংসী এই ব্যাটসম্যানের মতো কেউ বাংলাদেশের ক্রিকেটে কেন তৈরি হয় না, সেটা নিয়ে ক্রিকফ্রেঞ্জিতে প্রচারিত দ্যা তামিম ইকবাল শো’তে কথা বলেছেন স্বয়ং তামিম ইকবাল!

Advertisement

২০১১ সালের আগস্টে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় বাটলারের। শুরুর দিকে ৬-৭ নম্বরে ব্যাটিং করলেও সময়ের বিবর্তনে দলের নির্ভরযোগ্য ওপেনারে পরিণত হন তিনি।

ক্যারিয়ারের শুরুতে উদ্ভাবনী শট খেলায় সুনাম ছিল বাটলারের। ম্যাচের গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে স্কুপ, রিভার্স সুইপের মতো সাহসী শট খেলতে দেখা যেত তাঁকে। কখনো সফল হয়েছেন কিংবা কখনো ব্যর্থ। কিন্তুই নিজের খেলার ধরন কখনোই বদলাননি ইংলিশ এই উইকেটরক্ষক। তাঁর দেশও তাঁকে সবসময় সমর্থন করেছে।

Advertisement

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট যেন পুরোই আলাদা। দেশের ক্রিকেটে কেউ উদ্ভাবনী শট খেলতে গিয়ে ডাগ-আউটে ফিরে গেলে তাকেই দোষারোপ করা হয় সর্বদিক থেকে। এমন সংস্কৃতির পরিবর্তন হলেই জস বাটলারের মতো কাউকে বাংলাদেশের ক্রিকেটে তৈরি করা সম্ভব বলে মনে করেন তামিম,

অনুষ্ঠানটিতে ক্রিকেট গুরু নাজমুল আবেদীন ফাহিমের সঙ্গে আলাপকাপে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় কি স্যার, আমরা সবাই চাই জস বাটলারের মতো কাউকে বের করে আনি। কিন্তু আমাদের মানসিকতা এখনো পিছিয়ে আছে। যেমন স্কুপ করে আউট হওয়া যাবে না। সোজা ব্যাটে এক এক রান করে খেলা শেষ করতে হবে। আপনি যদি আফিফকে আমার মতো বানাতে চান তাহলে তো এই ধরনের ক্রিকেটার আসবে না।’

Advertisement

তিনি আরও বলেন, ‘জস বাটলার যখন আসলো, ও কিন্তু পুরোপুরি আরেক রকমের খেলোয়াড় ছিল। পেছনে খেলত বা বিভিন্ন শট খেলত। আমার মনে হয় না আমরা এই জিনিসটার জন্য তৈরি আছি, যে এভাবেও ক্রিকেট খেলা যায়। আপনি যদি বলেন আমরা জস বাটলারের মতো কাউকে বের করি না। কেন করি না? এই জিনিস থেকে আপনাদের বের হতে হবে। আফিফ বা আরও যারা আছে ওদের ওভাবে থাকতে দিন। যদি আপনার পছন্দ না হয় ওর খেলার ধরন তাহলে আপনি ওকে নির্বাচনই করবেন না।’

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বেশ কয়েকবার রিভার্সসুইপ খেলে ফিরে গিয়েছেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এ কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে সবদিকেই সমালোচনা হচ্ছে তাঁর। কিন্তু এতে মুশফিকের ওপরেই নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন তামিম।

Advertisement

এই প্রসঙ্গে তামিম বলেন, ‘একটা নির্দিষ্ট ক্রিকেটারকে নিয়ে এখন আলোচনা চলছে যে কেন সে স্কুপ খেলে, রিভার্স সুপ খেলে। এটা নিয়ে সবাই অনেক বলছে এবং সেটা ওই প্লেয়ারের কানেও যাচ্ছে। এখন ধরেন সামনের কোনও ম্যাচে স্কুপ, রিভার্স সুপ বা সুইপ করার সুযোগ আসছে, সে কিন্তু সেটা করবে না। মনের মধ্যে ভয় কাজ করবে।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

ভারতীয় তারকারা অনুপস্থিত, সিরিজ জমাতে বদলার গল্প হর্ষের, গান্ধীগিরি উইলিয়ামসনের- ভিডিয়ো

হর্ষের বদলা নেওয়ার ঘটায় নিজে খাবি খেলেও, প্রতিশোধের আগুনে জ্বললেন না কেন উইলিয়ামসন। বরং গান্ধীগিরি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.