Breaking News

জীবনের ‘উত্থান–পতনে’র অভিজ্ঞতায় ভরসা স্টোকসের

বেন স্টোকস মনে করেন মাঠে ও মাঠের বাইরে যে উত্থান–পতনের মধ্য দিয়ে তিনি গেছেন, সেটি ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে তাঁর কাজে আসবে। এই উত্থান–পতনের অভিজ্ঞতা তাঁকে সাহায্য করবে চাপ সামলাতে।

ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর প্রথম সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন ২০১৯ সালে ব্রিস্টলে নাইট ক্লাবের বাইরে মারামারির ঘটনায় জড়িয়ে পড়ার ব্যাপারটি তাঁর জন্য একটা বড় শিক্ষা ছিল। একই সঙ্গে গত বছর মানসিকভাবে ভেঙে পড়াও তাঁর জন্য বড় শিক্ষা। মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় তিনি অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্রিকেট থেকে বিরতি নিয়েছিলেন। ওই সময়টা তাঁকে এ ব্যাপারে সতর্ক হওয়ার সময়গুলো সম্পর্কে সচেতন করেছে।

স্টোকস এখন অনেক বেশি পরিণত গত সপ্তাহে ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের অধিনায়ক হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে স্টোকসকে নিয়ে কিছুটা শঙ্কাও তৈরি হয়েছে। ইংল্যান্ড টেস্ট দলের অধিনায়কত্বের চাপটা তাঁর জন্য শেষ পর্যন্ত বোঝা হয়ে দাঁড়ায় কি না, সেটি নিয়েই শঙ্কাটা।

বেশ কিছু বিষয়ে আশ্বস্ত হয়েই ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়কত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন স্টোকস। ইংলিশ ক্রিকেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রব কি তাঁকে বলেছেন, আগামীতে ইংল্যান্ডের হেড কোচ নিয়োগে স্টোকসের মতামতের একটা বড় ভূমিকা থাকবে। একই সঙ্গে দুই সেরা ফাস্ট বোলার, জেমস অ্যান্ডারসন ও স্টুয়ার্ট ব্রডও তাঁর পরিকল্পনার অংশ হবেন। গত অ্যাশেজের পর মার্চের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে এ দুজন সেরা বোলিং পারফরমারকে কোনো কারণ না দেখিয়েই দল থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বলা হচ্ছিল, নতুন করে দল ঢেলে সাজাতেই এমনটা করা হয়েছে। তবে স্টোকস এ দুজনকে নিয়েই নিজের পরিকল্পনা সাজাবেন বলে জানিয়েছেন।

ব্রড–অ্যান্ডারসন হবেন স্টোকসের পরিকল্পনার অংশ এ মুহূর্তে ইংল্যান্ড টেস্ট দলে তাঁর কোনো সহ–অধিনায়কের দরকার নেই বলেই জানিয়েছেন স্টোকস। তবে প্রয়োজনে তিনি জো রুটের সাহায্য নিয়েই কাজ করবেন। তাঁর পরামর্শ নেবেন।

সংবাদ সম্মেলনে স্টোকস বলেন, ‘পেশাদার ক্রিকেটার হওয়ার পর থেকে আমি অনেক কিছুর মধ্য দিয়ে গিয়েছি। সেই অভিজ্ঞতাগুলো আমার নতুন ভূমিকার ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলেই আমি মনে করি। আমি আমার ক্যারিয়ারে অনেক উত্থান ও পতনের মধ্য দিয়ে গিয়েছি। খেলার জগতে আপনি এমন উত্থান–পতন দেখবেন, আমি মনে করি আমি এই দুই দিকই খুব ভালোভাবে বুঝতে পারব।’

আপাতত রুটের কাছ থেকেই পরামর্শ নেবেন স্টোকস টেস্ট অধিনায়ক হলেও তিনি নিজেকে বদলাবেন না বলেই জানিয়েছেন, ‘এ মুহূর্তে আমি ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক। আমি আশা করি, আমি যাদের সঙ্গে একদিন খেলেছি, তারা আমাকে বিরাট কিছু মনে করবেন না। তাঁরা আগের মতোই আমার সঙ্গে এসে কথা বলতে পারবে। আমি আমার ক্যারিয়ারে এখনো পর্যন্ত যেসবের মধ্য দিয়ে গিয়েছি এগুলোকে আমি ইতিবাচক চোখেই দেখি আর ভালো–মন্দ যা–ই হোক আমি অন্যদের দিকগুলোও ভালো বুঝব।’

রব কির সঙ্গে নিজের রসায়নটা নিয়েও বলেছেন স্টোকস, ‘গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো, আমি রবি কির সঙ্গে কাজ করছি আর তিনি আমার সুবিধা–অসুবিধার বিষয়ে যথেষ্ট সচেতন। আমি যেন আমার সঙ্গে সঠিক ব্যক্তিদের নিয়ে কাজ করতে পারি, কি সেটিই নিশ্চিত করছেন। খেলার বাইরে আসলে কেউই নিজের ওপর বেশি করে চাপ নিতে চাইবে না। খেলার বাইরে অনেক বিষয় নিয়েই ভাবার আছে, একজন ভালো কোচ নিয়োগের ব্যাপার আছে, দরকার আছে সঠিক ব্যবস্থাপনার। মাঠের বাইরে অনেক চাপ সহ্য করার বিষয় আছে।’

ইংল্যান্ডের ৮১তম টেস্ট অধিনায়ক বেন স্টোকস তিনি কেমন সতীর্থ চান সে বিষয়েও বলেছেন, ‘আমি নিঃস্বার্থ ক্রিকেটার চাই, যারা ইংল্যান্ডের জয়ের জন্যই কেবল খেলবে। দিনের শেষে আমি জিততে চাই। জেতাটাই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমি এমন একটা দলের অংশ হতে চাই, যারা শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবে, কখনোই হারার আগে হেরে বসবে না।’

স্টোকস এমন একটা সময় ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের দায়িত্ব নিয়েছেন, যখন দলটা সর্বশেষ ১৭ টেস্টের মধ্যে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে। অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪–০ ব্যবধানে সিরিজ হারের পর মার্চে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাদের মাটিতে ইংল্যান্ড হেরেছে ১–০ ব্যবধানে। এই দুটি বিপর্যয়ের পরই অধিনায়ক হিসেবে জো রুট অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়ান।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Cricvive Desk

Cricvive is a sports media company that produces original video, audio, and written content for cricvive.com and other media partners, as well as the general public and news organizations.

Check Also

ওয়ানডেতে ৯৯ রানে আউটের ঘটনা ৩৫ বার, বাংলাদেশের কেবল মুশফিক

গতকাল কলম্বোয় ক্রিকেট ক্যারিয়ারে নতুন এক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলেন ডেভিড ওয়ার্নার। অস্ট্রেলিয়ার এ তারকা প্রথমবারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.