Breaking News

শাহিন আসলে ‘বিউটি’, আফ্রিদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ আক্রম

প্রথম ইনিংসে ভারতীয় দলের কাছে সবথেকে বড় ত্রাসের নাম শাহিন আফ্রিদি। তাঁর স্পেলে পাওয়ার প্লে চলাকালীন কুপোকাত হয়ে গেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। রোহিত শর্মা ও কেএল রাহুলকে নিজের তিন ওভারের মধ্যে ফিরিয়ে দিয়ে ম্যাচ ঘুরিয়ে নিয়েছিলেন পাকিস্তানের দিকে। পরে নিজের শেষ ওভারে বিরাট কোহলিকে ফিরিয়ে অন্তিম ঝটকাটি দেন ভারতকে। এবার তাঁর প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রাক্তন পাক পেসার ওয়াসিম আক্রম।

আজ ম্যাচ চলাকালীন টুইট করেন ওয়াসিম আক্রম। টুইটে লেখেন, ‘শাহিন ইউ লিটল বিউটি।’ প্রাক্তন পাক তারকা তাঁর টুইটের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি কতটা মুগ্ধ এই পাক তরুণের স্পেলে। ভারতীয় ব্যাটিংকে কীভাবে ভাঙা যায়, তা দেখিয়েছেন পাকিস্তানের এই তরুণ তুর্কি। মাত্র ২১ বছর বয়স তাঁর। বলের সুইং বুঝতে না পেরে আফ্রিদির বলে উইকেট দিয়েছেন রোহিত শর্মা। একইভাবে বল বুঝতে না পেরে বোল্ড হয়েছেন কেএল রাহুলও। ম্যাচের প্রথম বল থেকেই দাপট দেখিয়েছেন শাহিন শাহ আফ্রিদি।

ভারতের টপ অর্ডারকে এবার সবথেকে শক্তিশালী টপ অর্ডার হিসেবে ধরা হচ্ছিল। রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল, বিরাট কোহলি। বিশ্ব ক্রিকেটে একেরপর এক বড় নাম আছে ভারতীয় দলের ব্যাটারদের তালিকায়। কীভাবে সঠিক লাইন আর লেংথে বল রেখে উইকেট নিতে হয় তা দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি।

ম্যাচের একটা সময় এমন জায়গায় গিয়েছিল যে দেখে মনে হচ্ছিল ম্যাচটা হয়ে দাঁড়িয়েছে বিরাট কোহলি বনাম পাকিস্তান। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে বিরাট একা ভারতীয় ব্যাটিংকে টেনে নিয়ে গেছেন। অন্যদিক থেকে একেরপর এক উইকেট পড়েছে। শাহিন আফ্রিদি, হাসান আলি, শাদাব খানদের দাপটে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ঋষভ পন্থ, সূর্যকুমার যাদব, রবীন্দ্র জাদেজারা।

বিশেষজ্ঞদের মতে বিরাট যদি ক্রিজে টিকে না থাকতেন তাহলে ভারতের এই ১৫১ রানে পৌঁছতে সমস্যা হত। ভারতের রান তোলার গতি কমিয়ে দিয়ে বিরাটের উইকেটটাও তিনি তুলে নেন। ৫৭ রানে রিজওয়ানকে উইকেট দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বিরাট। বলের পেস বুঝতে না পেরেই উইকেট দিতে হয় বিরাটকে। এরফলে টি-২০ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকার রেকর্ড ভেঙে দিলেন পাকিস্তানের এই নতুন স্পিডস্টার।

বড় ম্যাচে সবসমই নতুন কিছু করতে চান প্লেয়াররা। কিন্তু শাহিন আফ্রিদি বাকিদের থেকে আলাদা। নিজের প্রথম বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, কেএল রাহুলকে ফিরিয়ে নতুন ইতিহাস লিখলেন তিনি। নিজের চার ওভারে তিনি নিলেন তিনটে উইকেট। দিলেন মাত্র ৩১ রান। গড় ৭.৮০। বাঁহাতিদের পেসারদের বিরুদ্ধে ভারতের সমস্যা যে সবসময় তা দেখিয়ে দিলেন শাহিন আফ্রিদি।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

Asia Cup-এর আগে দুর্দান্ত শতরানে ভারতকে হুঁশিয়ারি দিলেন ফখর জামান, হাফ-সেঞ্চুরিতে রোহিতদের সতর্ক করলেন বাবর আজম

ফাইনালে দুর্দান্ত শতরান করে কার্যত একাই ভারতের হাত থেকে ২০১৭-র চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ছিনিয়ে নিয়েছিলেন ফখর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.