Breaking News
pakistan-indian-history-match

টক্কর কাঁটে কী: পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের কয়েকটি স্মরণীয় জয়, দেখে নিন

বিশ্বকাপে এখনও ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। কিন্তু হেড টু হেড বিচারে দুই দেশের সমানে সমানে টক্কর। দেখে নেওয়া যাক, দুই দেশের মধ্যে ICC ম্যাচের কিছু ইতিহাস তুলে
ক্রিকেট বললেই সবার আগে আমাদের চোখে ভেসে ওঠে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বন্ধ হওয়ার পর থেকে ICC-র ইভেন্টেই দেখা হয় দুই পড়শি দেশের। বিশ্বকাপের দিন ঘোষণা হলেই সবার আগে খোঁজ পড়ে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ কবে আয়োজিত হচ্ছে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ২৪ অক্টোবরের ম্যাচের আমেজ কোনও বড় ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনালকে হার মানিয়ে দেবে।

বিশ্বকাপে এখনও ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। কিন্তু হেড টু হেড বিচারে দুই দেশের সমানে সমানে টক্কর। দেখে নেওয়া যাক, দুই দেশের মধ্যে ICC ম্যাচের কিছু ইতিহাস তুলে ধরা হল:

২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি

ভারতের জন্য আনন্দ-বিষাদে ভরা ছিল এই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। গ্রুপ স্তরে পাকিস্তানকে ১২৪ রানে হারায় ভারত। কিন্তু ফাইনালে গিয়ে পদস্খলন হয়। পাকিস্তানের কাছে ১৮০ রানে হেরে ট্রফি হাতছাড়া করে ভারত। ফাইনালে বুমরাহের নো বল ভারতের জন্য অনেক দামি হয়ে দাঁড়ায়।

১৯৯২ সালের বিশ্বকাপের গ্রুপ স্তর (সিডনি)

১৯৯২ সালে ভারত পাকিস্তান প্রথমবার বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়। এই ম্য়াচে জনপ্রিয় হয়েছিল জাভেদ মিঞাঁদাদের সঙ্গে কিরণ মোরের কথোপকথন। সেই ম্যাচে ৪৩ রানে জয়লাভ করে ভারত। সচিন তেন্ডুলকর করেন অপরাজিত ৫৪ রান।

২০০৭ সালের টি-২০ বিশ্বকাপ

টি-২০ বিশ্বকাপে দুবার পাকিস্তানকে হারিয়েছিল ভারত। গ্রুপ স্তরে ম্যাচ ড্র হয় প্রথমে। তারপর ‘বোল আউট’-এর মাধ্যমে ম্যাচ শেষ হয়। এরপর ফাইনালে পাকিস্তানের মুখোমুখি হয় ভারত। সেখানেও পাকিস্তানকে হারিয়ে প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপ ঘরে তোলে ধোনি ব্রিগেড। ফাইনালে শেষের দিকে মনে হয়েছিল পাকিস্তান জিতে যেতে পারে। মিসবা উল হক কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিল ভারতের সামনে। শেষ ওভার পর্যন্ত টানটান উত্তেজনা ছিল ম্যাচে। এরপর যোগীন্দর শর্মার স্পেলে ক্যাচ তুলে আউট হন মিসবা।

১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপের কোয়াটার ফাইনাল (বেঙ্গালুরু)

এই ম্যাচকে এখনও পর্যন্ত দুই দেশের মধ্যে হওয়া অন্যতম সেরা ম্যাচ বলে মনে করেন অনেকে ক্রিকেট পন্ডিত। বেঙ্গালুরুর চিন্নস্বামী স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। ভারত টসে জিতে ব্যাট করে। নভজোৎ সিং সিধু ৯৩ রান করেন। যেখানে অজয় জাদেজা করেন ৪৫ রান। ৮ উইকেট হারিয়ে ভারত করেছিল ২৮৭ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরু করেও শেষ করতে পারেনি পাকিস্তান। ভেঙ্কটেশ প্রসাদ ও অনিল কুম্বলে নেন তিনটে করে উইকেট। একটি করে উইকেট নেন জাভাগল শ্রীনাথ ও ভেঙ্কটপতি রাজু। ফলস্বরূপ ৯ উইকেটে ২৪৮ রানে শেষ হয় পাকিস্তানের ইনিংস।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

১৪ বছর পর ক্ষমা চাইলেন হরভজন

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রথম আসরে এস শ্রীশান্থকে থাপ্পড় মেরে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন হরভজন সিং। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.