Breaking News
newzeland -go-worldcup-final

রোমাঞ্চকর জয়ে বিশ্বকাপ ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

ইংল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। আজ আবুধাবিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে আগে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডকে ১৬৭ রানের টার্গেটে ইংল্যান্ড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৬ বল হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় নিউজিল্যান্ড।

Advertisement

আবুধাবিতে টস হারে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু পেয়েছিল ইংলিশরা। পাওয়ার প্লে ঠিকভাবেই কাজে লাগিয়েছিলো ইংলিশদের দুই ওপেনার জশ বাটলার ও জনি বেয়ারস্টো। তারা দুজনে প্রথম ৬ ওভারে তুলে ফেলেছিলেন ৪০ রান।

কিন্তু এরপরে ব্যাটিংয়ে ওপেন করা বেয়ারস্টোকে ফিরতে হয় ১৭ বলে ১৩ রান করে। পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে মিলনের বলে উইলিয়ামসনকে ক্যাচ দেন এই হার্ডহিটার। পরে বেশি সময় থাকতে পারেননি জশ বাটলারও।

Advertisement

কিউই স্পিনার ইশ সোধির ঘুর্ণিতে পরাস্ত হন চলমান বিশ্বকাপে প্রথম সেঞ্চুরিয়ান জশ বাটলার। রিভিউ নিয়েছিলেন কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। ফেরার আগে তিনি করেন ২৪ বলে ২৯ রান। ইনিংসে ছিল ৪টি চারের মার।

এরপর ৩০ বলে ক্যামিও ইনিংস খেলেন ডেভিড মালান। তার ইনিংসে ছিল ৪টি চার একটি ছয়ের মার। মঈনের সঙ্গে দারুণ জুটি গড়ে এই হার্ডহিটার ফেরেন দলীয় ১১৬ রানের মাথায়। টিম সাউদিকে ছক্কা মারার পরের বলে কনওয়েকে ক্যাচ দেন মালান। তবে শেষ পর্যন্ত ছিলেন মঈন আলী। ৩৭ বলে ৩ চার আর ২ ছয়ে এই অলরাউন্ডার তার ৫১ রানের ইনিংস সাজান। শেষের দিকে ১০ বলে ১৭ রান করেন লিয়াম লিভিংস্টোন।

Advertisement

ইংল্যান্ডের দেওয়া ১৬৭ রানের ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করেনি নিউজিল্যান্ড। শুরুর তিন ওভারের মাঝেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন দুই কিউই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল ও কেন উইলিয়ামসন। ৪ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মার্টিন গাপটিল এবং ৫ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

দুইটি উইকেট তুলে নেন ক্রিস উকস। তবে দলে বিপর্যয়ের মুহূর্তে দারুন একটি পার্টনারশিপ গড়েন ড্যারিল মিচেল-ডেভন কনওয়ে। কিন্তু দলীয় ৯৫ রানের সময় তাদের ভয়ংকর ৮২ রানের জুটি ভাঙেন লিয়াম লিভিংস্টোন। স্টোনকে এগিয়ে মারতে গিয়ে বল ব্যাটে কানেকশন করতে পারেননি কনওয়ে।

Advertisement

পিছনে এতটুকুও ভুল করেননি জশ বাটলার। স্টাম্পিং হয়ে ফেরার আগে ৩৮ বলে ৪৬ রান করেছেন কনওয়ে। পরে আবার তার শিকার হন ফিলিপস। দুই উইকেটের আবারো চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডকে আবারো আশার আলো দেখাতে থাকেন জিমি নিশাম।

তবে দলীয় ১৪৭ রানের মাথায় জেমি নিশামের উইকেট তুলে নেন আদিল রশিদ। ১০ বলে একটি চার এবং তিনটি ছক্কা হাঁকিয়ে ২৬ রান করেন জিমি নিশাম। তবে নিউজিল্যান্ডের হয়ে শেষটা করেন ড্যারিল মিচেল। ৪৮ বলে ৪টি চার এবং চারটি ছক্কা সাহায্যে ৭৩ রান করে অপরাজিত থাকেন ড্যারিল মিচেল।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

গাঁজার থেকে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে টি-টোয়েন্টি লিগ, বিরক্ত অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটার

বিভিন্ন দেশে টি-টোয়েন্টি লিগ শুরু হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ইংল্যান্ডে আগেই টি-টোয়েন্টি লিগ ছিল, পরের বছর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.