Breaking News

RCB-কে দুরমুশ করে IPL অভিযান শুরু KKR-এর

ম্যাচ শুরুর আগেই কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান বলেছিলেন এবার KKR দলকে আরও বেশি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে। ম্যাচেও সেই একই বক্তব্যের প্রতিফলন ঘটল। আজ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে ৯ উইকেটে উড়িয়ে দিল মরগ্যান ব্রিগেড।

IPL ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধ দুরন্ত ছন্দে শুরু করল কলকাতা নাইট রাইডার্স। কম রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করে নাইট ব্রিগেড নিজেদের নেট রানরেট অনেকটাই বাড়িয়ে নিল। একলাফে তারা পয়েন্ট টেবিলে পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে। অসাধারণ একটা ইনিংস কলকাতাবাসীকে উপহার দিলেন ভেঙ্কটেশ আইয়ার।

আজই তাঁর আইপিএল ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে। শুভমন গিলও ছিলেন দুরন্ত ছন্দে। মোদ্দা কথা, আজকের ম্যাচে এন্টারটেইনমেন্টের কোনও অভাব ছিল না। বিরাটদের হারানোর পর কলকাতা কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককালাম যে অত্যন্ত খুশি হবেন, সেকথা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

আজ নাইট ব্রিগেডের শরীরী ভাষায় জয়ের খিদেটা ছিল চোখে পড়ার মতো। টুর্নামেন্টের প্রথমার্ধে যে দলটার হারতে হারতে ক্রমশ দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল, দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ম্যাচেই তারা ঘুরে দাঁড়াল। তবে এই জয়ের কৃতিত্ব অবশ্যই কলকাতার বোলারদের। আজ দলের পঞ্চম বোলার হিসেবে রাসেলের উপর আস্থা রেখেছিলেন মরগ্যান সাহেব। রাসেল একাই ব্যাঙ্গালোর দলে শুরুর কাঁপুনিটা ধরিয়ে দিয়েছিলেন।

গতবারের তুলনায় এবার তাঁকে আরও বেশি ফিট দেখাচ্ছিল। তিনি প্রথম বলেই ডি ভিলিয়ার্সের উইকেট তুলে নেন। এরপর কলকাতার দুই মিস্ট্রি স্পিনারের ম্যাজিকে রীতিমতো নাকানিচোবানি খেয়ে যায় ব্যাঙ্গালোরের লোয়ার মিডল অর্ডার। বরুণ চক্রবর্তী এবং সুনীল নারাইন দলের জয়ের মঞ্চটা প্রস্তুত করে দিয়েছেন।

আজ IPL কেরিয়ারের ২০০তম ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ার পর রীতিমতো হতাশ তিনি। বললেন, ‘আমাদের দলের একটা বড় পার্টনারশিপ দরকার ছিল।

৪২ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর মাত্র ২০ রানের মধ্যেই আমরা পরপর পাঁচটা উইকেট হারাই। এটা আমাদের কাছে যথেষ্ট বড় একটা বিপদ সংকেত। তবে প্রথম ম্যাচে এমন একটা ফলাফল আখেরে ভালোই হল। কারণ কোন কোন জায়গায় আমাদের এখনও কাজ করতে হবে, সেই ব্যাপারে আরও ভালো করে বুঝে নেওয়া গেল।’

পাশাপাশি তিনি কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের মিস্ট্রি স্পিনার বরুণ চক্রবর্তীর প্রশংসা করেন। তিনি আশ্বাস দেন, আগামীদিনে ভারতীয় ক্রিকেট দলে বরুণ যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করবে। এটা সত্যিই একটা ভালো দিক। সবশেষে তিনি বলেন, ‘আমরা আটটা ম্যাচের মধ্যে পাঁচটায় জয়লাভ করেছি।

তবে জয়-পরাজয় তো লেগেই থাকে। আমাদের আরও পেশাদার হতে হবে। নিজেদের দলের শক্তিগুলো আঁকড়ে ধরতে হবে। নিজেদের পরিকল্পনা আরও ভালো করে বাস্তবায়িত করতে হবে। দলের উপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আশা করছি পরের ম্যাচে জয়ের সরণীতে ফিরতে পারব।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরিকল্পনা এখন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে, বলে দিলেন কার্তিক

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলছে ভারত। কার্তিক জানালেন, বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে এর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.