Breaking News
joy-in-balochistan-at-the-rate-of-pakistan

পাকিস্তানের হারে বেলুচিস্তানে আনন্দ-উল্লাস

পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় প্রদেশের নাম বেলুচিস্তান। কিন্তু সেখানে শান্তি নেই বহুদিন ধরেই। ইরান সীমান্তের কাছে অবস্থিত বেলুচিস্তান প্রদেশের মানুষ চায় স্বাধীনতা, পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় শাসনব্যবস্থা থেকে মুক্তি। গতকাল বেলুচরা টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পাকিস্তানের হারে রীতিমতো উল্লাস প্রকাশ করেছে।

Advertisement

শাহিন আফ্রিদির ১৯তম ওভারে ম্যাথু ওয়েডের টানা তিন ছক্কার পর বেলুচদের উল্লাস প্রকাশের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে টুইটারে। বেলুচ অধিকারকর্মী শায়েজাদ বালুচের পোস্ট করা এই ভিডিওতে দেখা যায়, পাকিস্তানের হার নিশ্চিতের পরপরই একটি কক্ষে উপস্থিত বেলুচ তরুণেরা উল্লাসে ফেটে পড়ছেন। তাঁরা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে আবেগঘন প্রতিক্রিয়াও ব্যক্ত করছেন। চেয়ারের ওপর উঠে অনেককে উল্লাসে নাচতেও দেখা যায়।

১৯৪৭ সালে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে পাকিস্তানের অভ্যুদয়ের সময়ই বেলুচিস্তান পাকিস্তানের ভূখণ্ডে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল। কিন্তু প্রদেশটিতে কখনোই শান্তি আসেনি। অথচ, এই প্রদেশ খনিজ সম্পদের জন্য বিখ্যাত। পাকিস্তানের গ্যাস সম্পদের প্রায় পুরোটাই জোগান দেয় বেলুচিস্তান। তারপরও বেলুচ জনগোষ্ঠী মনে করে, পাকিস্তান রাষ্ট্রে তাদের যোগ্য মর্যাদা নেই। এমনকি রাষ্ট্রীয় উন্নয়নেও বেলুচিস্তান পাকিস্তানের অন্য প্রদেশগুলো (পাঞ্জাব, সিন্ধু ও খাইবার পাখতুনখাওয়া) থেকে অনেক পিছিয়ে আছে। বৈষম্যের কারণে দীর্ঘ দিন ধরেই বেলুচরা বিচ্ছিন্নবাদী আন্দোলন ও সশস্ত্র বিদ্রোহী কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। বিভিন্ন সময় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর অভিযানে বেলুচ তরুণেরা প্রাণ হারিয়েছেন। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগও আছে প্রচুর।

Advertisement

এটি পাকিস্তানের সবচেয়ে দরিদ্র প্রদেশ। এক হিসাবে দেখা গেছে বেলুচিস্তানের ৭০ শতাংশ জনগোষ্ঠী দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ—সব জায়গাতেই বেলুচিস্তান একটি পিছিয়ে পড়া প্রদেশ। এখানে মাতৃমৃত্যুর হারও অনেক বেশি। সুপেয় পানি এই প্রদেশের একটি বিরাট সমস্যা।

এবারের টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে সব কটি ম্যাচ জিতেই সেমিফাইনালে উঠেছিল পাকিস্তান। প্রথম ম্যাচেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে ১০ উইকেটে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে তারা। দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডও হারে পাকিস্তানের কাছে। এরপর আফগানিস্তান, নামিবিয়া ও স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিল পাকিস্তান। গতকাল ভালো অবস্থানে থেকেও ম্যাথু ওয়েড আর মার্কাস স্টয়নিসের এক জুটিতেই ম্যাচ হেরে যায় পাকিস্তান। দলের সেরা বোলার শাহিন আফ্রিদিকে ১৯তম ওভারে পরপর তিনটি ছক্কা মেরে পাকিস্তানের স্বপ্ন শেষ করে দেন অস্ট্রেলিয়ান উইকেটকিপার–ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েড।

Advertisement

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

কোনও অভিযোগ করছি না, তবে এটাই সত্যি- দলে জায়গা না পাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন ভারতের পেসার

২০২৩ সালে একটি দুর্দান্ত শুরু করেছে টিম ইন্ডিয়া। দলটি শ্রীলঙ্কা এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *