Breaking News
indian-team-do-not-have-hard-hitter

ভারতীয় দলে নেই বিধ্বংসী ব্যাটার, বিশ্বকাপে এটাই কি বিপদ ডেকে আনল

দু’বছর আগে থেকেই ভারতীয় দল টি২০ বিশ্বকাপের জন্য তৈরি হওয়ার কথা ভেবেছে। ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো শুরু থেকেই রান তোলার মতো ব্যাটার দিয়ে দল তৈরি করা হয়েছে। শুরুতে লোকেশ রাহুল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলী এবং সূর্যকুমার যাদবের মতো ক্রিকেটার রয়েছেন। পাঁচ নম্বরে ঋষভ পন্থ এবং ছ’নম্বরে হার্দিক পাণ্ড্যকে ফিনিশার হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁরা কেউ ‘বিধ্বংসী’ হয়ে উঠতে পারেননি। এর পিছনে আইপিএল-কেই দায়ী করছেন অনেকে।

ভারতের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠৌর মনে করছেন ভারতীয় দলে ফিনিশার রয়েছে। তিনি বলেন, “আমাদের দলে জাডেজা আছে, সূর্য আছে। কোহলীও ম্যাচ শেষ করার ক্ষমতা রাখে। দলে ফিনিশার নেই, এমনটা নয়।” ব্যাটিং কোচ মানতে না চাইলেও বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচে শুরুর ধাক্কা সামলাতে ব্যর্থ হন পন্থ, হার্দিকরা। এই ব্যর্থতার পিছনে আইপিএল-কেই দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।

কোটিপতি লিগে বিভিন্ন দলে ফিনিশারের ভূমিকায় দেখা যায় আন্দ্রে রাসেল, কায়রন পোলার্ড, মার্কাস স্টোইনিস, শিমরন হেটমেয়ার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মইন আলি, ডোয়েন ব্র্যাভো, স্যাম কারেন, এবি ডিভিলিয়ার্সদের। ভারতীয় দলের ক্রিকেটাররা প্রথম চারের মধ্যে খেলতেই অভ্যস্ত। ভারতের ব্যাটিং কোচ বলেন, “যে কোনও আন্তর্জাতিক দলেই এটা দেখা যাবে। নিজের রাজ্য, দেশ বা ক্লাবের হয়ে খেলতে হলে প্রথম চারেই নামতে চাইবে সকলে। কিন্তু ভারতের হয়ে খেলতে নামলে ব্যাটিং অর্ডার মানতেই হবে। পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে মানিয়ে নেওয়াটাই কাজ।”

এ বারের বিশ্বকাপে যে ম্যাচগুলি ভারত জিতেছে তাতে ফিনিশারের প্রয়োজন হয়নি। ওপেনাররাই কাজ শেষ করে দিয়েছিলেন। এক সাক্ষাৎকারে রাঠৌর বলছিলেন, “ভারতীয় দলের এখনও কিছু কাজ বাকি।” ফিনিশারের কথা ভেবেই হয়তো সেই কথা বলেছিলেন ভারতের ব্যাটিং কোচ। ফের কোচ হতে চেয়ে আবেদনও করেছেন তিনি। দলের মেন্টর মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। তবু এই বিশ্বকাপে ফিনিশার পেল না ভারত।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

একঝলক দেখার জন্য রাস্তা আটকে দাঁড়িয়ে হাজার হাজার মানুষ, ভিড় দেখে মাথায় হাত রোহিতের

জনপ্রিয়তায় বলিউড তারকাদের অনায়াসে পিছনে ফেলতে পারেন রোহিত শর্মা। ভারত অধিনায়কের অনুরাগীর সংখ্যা চ্যালেঞ্জ জানাতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.