Breaking News

‘বাইরের দুনিয়ায় কান দিয়ো না’, হর্ষলদের জন্যে এটাই মূলমন্ত্র নতুন নেতা রোহিতের

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হতাশ করলেও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজে স্বমহিমায় ভারত। শুক্রবার রাঁচীতে দ্বিতীয় ম্যাচে জিতে সিরিজ পকেটে পুরে নিল তারা। এই জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিলেন হর্ষল পটেল। অভিষেকেই ম্যাচের সেরা তিনি। রোহিত শর্মার এই দলে তরুণরা যেন নিজেদের মেলে ধরার আরও সুযোগ পাচ্ছেন। আর তাঁদের পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছেন রোহিত। তরুণদের উদ্দেশে তাঁর মন্ত্র, বাইরের কথায় কান দিয়ো না।

Advertisement

ম্যাচের পর ভারত অধিনায়ক বললেন, “ওদেরকে স্বাধীনতাটা দেওয়াটা খুব দরকার। বাকিটা আপনা থেকেই ঠিক হয়ে যাবে। বাইরের কথায় বেশি কান দিতে বারণ করেছি ওদের। আমাদের তরুণ দল। বেশি ম্যাচ একসঙ্গে খেলেনি। তাই ওদের যথেষ্ট সময় দেওয়াটা দরকার। যারা এখনও খেলেনি তাদের বলছি, আশা হারিয়ো না। হর্ষল আজ সুযোগ পেয়েছে, তোমরাও পাবে।” রোহিতের সংযোজন, “গোটা দলই আজ ভাল খেলেছে। খুব একটা সহজ পরিস্থিতি ছিল না। তা-ও আমাদের বোলাররা যে ভাবে ঘুরে দাঁড়াল তা অসামান্য। ওরা শুরুতে ভাল শট খেলছিল। কিন্তু আমি বার বার ছেলেদের বলছিলাম, একটা উইকেট পেলেই সব বদলে যাবে।”

জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান কেএল রাহুলেরও। ওপেনিংয়ে আরও একবার দলকে ভরসা দিলেন তিনি। ৪৯ বলে ৬৫ করলেন। মেরেছেন ৬টি চার এবং ২টি ছয়। ম্যাচের পর রাহুলের কথায় রোহিতের সঙ্গে তাঁর ওপেনিং জুটির সাফল্যের কথা, বিশ্বকাপেও যা একাধিক বার দেখা গিয়েছে। রাহুল বললেন, “আমরা দু’জনেই প্রথম দু’ওভার সাবধানে খেলে নিয়ে বুঝে নিতে চাই পিচ কী রকম আচরণ করছে। তারপরে ঠিক করি কী রকম শট আমরা খেলতে পারি। কত দ্রুত রান এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। তারপর যদি আজকের মতো এত ভাল শুরু হয় যেখানে স্কোরবোর্ডে ভাল রান ওঠার পরেও হাতে দশ উইকেট রয়েছে, তাহলে আমরা বোলারদের উপর আক্রমণ করার সিদ্ধান্ত নিই।”

Advertisement

রাহুলের সংযোজন, “পিচে দাঁড়িয়ে যেটা আমাদের ভাল মনে হয় সেটাই করি। হাতে উইকেট থাকলে তার জন্য ঝুঁকি নিতেও পিছপা হই না। আমরা জানি মিডল অর্ডার কতটা শক্তিশালী। দারুণ কিছু খেলোয়াড় রয়েছে আমাদের দলে। তাই শুরুতে ভাল শট খেলে ভিতটা তৈরি করে দিই। তারপরে বাকিরা এসে শেষ কাজটা করে যায়।”

ওপেনিং জুটির সাফল্যের পিছনে রোহিতের অবদান যে কম নয় সেটাও স্বীকার করেছেন রাহুল। বলেছেন, “আমরা একে অপরের সঙ্গে ব্যাটিং উপভোগ করি। আমি বরাবর ব্যাটার রোহিতকে শ্রদ্ধা করি। ও এর মধ্যেই গোটা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে কত ভাল ব্যাটার। দু’জনেই একে অপরের চাপটা নিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করি। রোজ রোজ নতুন পদ্ধতিতে রান তোলার দিকে নজর দিই। হয়তো এই কারণেই আমাদের এত সাফল্য।”

Advertisement

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

বাংলাদেশ – ভারত সিরিজ ‘ক্রিকেটাররা নিউজিল্যান্ড থেকে বাংলাদেশে যেতে পারলে কোচরা কেন নয়’

বিশ্বকাপ হতাশার পর নিউজিল্যান্ড সফরে বেশ কয়েকজন সিনিয়র ক্রিকেটারসহ কোচদের বিশ্রাম দিয়েছে বোর্ড অব কন্ট্রোল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.