Breaking News
dont-go-judging-this-team-by-watching-the-world-cup-the-clear-roar-is-serious

বিশ্বকাপ দেখে এই দলটাকে বিচার করতে যাবেন না, স্পষ্ট হুঙ্কার গম্ভীরের

চলতি টি-২০ বিশ্বকাপ থেকে ইতিমধ্যেই ছিটকে গিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ওপেনার গৌতম গম্ভীর এই রেজাল্ট দেখে রীতিমতো হতাশ। তবে কোহলি ব্রিগেডের এই কঠিন সময়ে দলের পাশেই দাঁড়িয়েছেন গম্ভীর।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ায় লেখা একটি প্রতিবেদনে গম্ভীর জানিয়েছেন, ‘এই অনুভূতিটা একেবারেই ভালো নয়। একজন ক্রীড়াবিদ হিসেবে আপনি সবসময়ই জিততে চাইবেন। সেকারণে প্রতিযোগিতা যত সামনের দিকে এগোয় বিভিন্ন সময় দলটাকে ভাঙতে হয়। ভারতীয় ক্রিকেট দলে এই একই ঘটনা ঘটেছে। চ্যাম্পিয়নরা অনুশীলন করে। বিপক্ষের থেকে একটা রান বেশি করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে কেউ অন্তত আফগানিস্তান বনাম নিউজিল্যান্ড ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকে না। এইভাবে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়া কিংবা নেট রানরেটে পিছিয়ে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সেমিফাইনালে উঠতে না পারার দুঃখ অনেকগুণে বেশি।’

দিন কয়েক আগে আফগানিস্তানকে নিউজিল্যান্ড হারানোর পর কিউইরা দ্বিতীয় গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে উঠে যায়। অন্যদিকে ছিটকে যায় ভারত।

সেইসঙ্গে তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘এই দুটো ক্ষেত্রেই একটা ব্যাপার বেশ স্পষ্ট। পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের জয়ের জন্য স্পষ্ট কোনও পরিকল্পনা ছিল না। খেলাধুলোয় কিন্তু-পরন্তুর কোনও জায়গা নেই। যদি শাহিন শাহ আফ্রিদির বিরুদ্ধে আরও খানিকটা পূর্ব পরিকল্পনা করত, কিংবা উইকেটটাকে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে আরও ভালোভাবে পড়তে পারত, তাহলে খেলার পারফরম্যান্স অন্যদিকেও ঘুরতে পারত। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্ষেত্রে কিন্তু ব্যাপারটা একেবারে আলাদা। ওদের মধ্যে আগ্রাসনের যথেষ্ট অভাব ছিল। বিশেষ করে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ৮৫ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে সেটা খুব স্পষ্ট বুঝতে পারা যাচ্ছিল। রাউন্ড রবিন গ্রুপে কি দুটো গ্রুপের পরিবর্তে প্রত্যেকের সঙ্গে প্রত্যেকের খেলা উচিত ছিল?’

এই টুর্নামেন্টে বিরাট কোহলির দল হট ফেভারিট হিসেবেই মাঠে নেমেছিল। কিন্তু, পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হেরে গিয়ে ভারত অঙ্কটা জটিল করে ফেলে। সেকারণে অপেক্ষাকৃত দুর্বল দলগুলোর ম্যাচের উপরে ভারতের ভাগ্য নির্ধারিত হয়।

তিনি বললেন, ‘দেশের প্রত্যেকটা ক্রিকেট সমর্থকের কাছে আমি আজও আর্জি জানাব এরপরেও যেন তারা এই দলটাকে নিয়ে গর্ব করে। চলতি টুর্নামেন্টে কারোর একক পারফরম্যান্স বিচার করলে অনেক সময়ই আমরা শ্রদ্ধা এবং বিশ্বাস হারিয়ে ফেলি। হ্যাঁ, আমরা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হেরে গিয়েছি। আমরা নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সঠিক পরকল্পনাও করতে পারিনি। হ্যাঁ, সীমান্তের ওপারে আমাদের বন্ধুরা সেমিফাইনালে পৌঁছে গিয়েছে। আমরা পারিনি। কিন্তু, গল্পটা এখানেই শেষ নয়। চলতি বছরের শুরুতেই এই ভারতীয় ক্রিকেট দল অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে সিরিজ জিতে এসেছে। এরপর আমরা দেশের মাটিতে ইংল্যান্ডকেও হারিয়েছি। ইংল্যান্ডের মাটিতে আমরা এখনও পর্যন্ত ২-১ সিরিজে এগিয়ে রয়েছি। এই ম্যাচটি পরের বছর আয়োজন করা হবে।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

এশিয়া কাপের দল ঘোষণা করল ভারত, ১৫ জনের স্কোয়াডে রয়েছে চমক

আসন্ন এশিয়া কাপের জন্য শক্তিশালী স্কোয়াড ঘোষণা করল ভারত। যদিও পূর্ণ শক্তির স্কোয়াড নিয়ে এশিয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published.