Breaking News

ওমানে টাইগারদের হারে কাঁদছেন ভক্তরা

ওমানে বাংলাদেশের একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে দেখা স্বপ্নের মত। ওমানের বসবাসরত বাংলাদেশী প্রবাসীরা কখনো ভাবতেই পারেননি ওমানে বসে বাংলাদেশ দলের খেলা দেখবেন। তাইতো অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল স্কটল্যান্ড হলেও গ্যালারিতে শুধুই ছিল টাইগার ভক্তদের গর্জন। কিন্তু তাদের মুখে হাসি ফোটাতে পারেনি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল।‌

যার কারণে ম্যাচ শেষে হতাশ হয়ে বাসায় ফিরতে হয়েছে টাইগার ভক্তদের। এই সময়ে স্টেডিয়ামের বাইরে কয়েকজনকে কাঁদতে দেখা গিয়েছে।‌ স্কটল্যান্ড-এর বিপক্ষে এই হার মানতে পারছেন না তারা। দুঃস্বপ্নের মতো একটি দিন কাটল বাংলাদেশের। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে অপেক্ষাকৃত দুর্বল স্কটল্যান্ড-এর বিপক্ষে ৬ রানে হেরেছে টাইগাররা।

ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪০ রান সংগ্রহ করে স্কটল্যান্ড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৩৪ রানে থেমেছে টাইগাররা। ১৪১ রানের মাঝারি টার্গেটকে সামনে রেখে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারে একটি চার মারার পর দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফিরেছেন বাংলাদেশি ওপেনার সৌম্য সরকার। ব্যাট হাতে তিনি করেছেন মাত্র ৫ রান। আরেক ওপেনার লিটনও করেন ৫ রান।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে মুশফিককে নিয়ে দেখে-শোনে খেলতে খেলতে ম্যাচটা অনেকটা জটিল করে ফেলেন সাকিব আল হাসান। ব্যাট হাতে ২৮ বলে ২০ রান তুলে ফেরেন তিনি। পরের ওভারে আউট হয়েছেন মুশফিকুর রহিমও। আউট হওয়ার আগে করেছেন ৩৮ রান।

শেষদিকে ম্যাচ জেতার ক্ষুদ্র প্রয়াস চালান দলীয় অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং আফিফ হোসেন। কিন্তু ততক্ষণে অনকে দেরি হয়ে যায়। সংগ্রাম চালিয়ে গেয়ে ২৩ রানে রিয়াদ এবং ১৮ রানে ফেরেন আফিফ। এছাড়া ২ রান করেন নুরুল হোসেন সোহান।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য বাংলাদেশের দরকার ছিল ২৪ রান। এক ছয় এবং দুই চারে ১৭ রান তুলতে পারেন শেখ মেহেদি হাসান এবং সাইফ। ১৩ রানে মেহেদি এবং ৫ রানে সাইফ অপরাজিত থাকেন।

এর আগে ম্যাচের শুরুতে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশি অধিনায়ক মাহমুদউল্রাহ রিয়াদ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচের প্রথম ওভারটা তাসকিনের হাতে তুলে দেন দলীয় অধিনায়ক। পরের ওভার করেন আইপিএল খেলে আসা মোস্তাফিজুর রহমান। দুজনে রিয়াদের ভরসায় প্রতিদানে দিতে পারেননি।

তৃতীয় ওভারে সাইফউদ্দিনের হাতে বল তুলে দেন রিয়াদ। সাইফ ঠিকই তার প্রতি ভরসার প্রতিদান দিয়েছেন। ওই ওভারের চতুর্থ বলে স্কটিশ ওপেনার কাইল কোয়েটজারকে ক্লিন বোল্ড করেন তিনি। আউট হওয়ার পূর্বে ৭ বল খেলে কোনো রানই তুলতে পারেননি এই ওপেনার।

আর ইনিংসের অষ্টম ওভারের খেলায় বিশ্বকাপের মঞ্চে নিজের প্রথম ওভারেই দুই স্কটিশ ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে পাঠান টাইগার অলরাউন্ডার শেখ মেহেদি হাসান। তার বলে ২৯ রানে জর্জ মুনশি এবং ১২ রানে ফেরেন ম্যাথু ক্রস।

মেহেদির পর বল হাতে জোড়া উইকেট নেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানও। ২ রানে রিচি বেরিংটনকে ০ শূন্যরানে ফেরান মিচেল লেস্ককে। পরের ওভারেই কালম ম্যাকলিওডকে ৫ রানে আউট করেছেন মেহেদি।

মাত্র ৫৩ রানে ৬ উইকেটে হারিয়ে চাপেই পড়ে স্কটল্যান্ড। এরপর সপ্তম উইকেট জুটিতে মাক্র ওয়াটকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন ক্রিস গ্রেভস। ১৭ বলে ২৫ রান করেন ওয়াটকে ফেরান তাসকিন আহমেদ। আর ক্রিস গ্রেভস ফিরেছেন ২৮ বলে ৪৫ রানে। আর ৮ রানে ফেরেন জস ডেভয়। এছাড়া ৮ রানে সাফইয়ান শরিফ এবং ১ রানে হোয়েল অপরাজিত থাকেন।

এদিকে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন শেখ মেহেদি হাসান। এছাড়া দুটি করে উইকেট পেয়েছেন সাকিব আল হাসান এবং মোস্তাফিজুর রহমান। আর একটি করে উইকেপ নেন তাসকিন আহমেদ ও সাইফউদ্দিন।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

৪,৬,৪,৬,৬,৪, বোলারদের ছারখার করা ব্যাটিং, পরপর ৬টি বলকে মাঠের বাইরে পাঠালেন মইন-লিভিংস্টোন

ব্যাট হাতে তাণ্ডব চালানো বোধহয় একেই বলে। ১০০ বলের ক্রিকেটে ১৪৫ রান তাড়া করা সহজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.