Breaking News
bangladesh-have-pakistani-supportar-told-babor-azam

বাংলাদেশেও পাকিস্তানের সমর্থক দেখছেন বাবর আজম

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে দর্শক আসবে মাঠে। করোনাকালে এই প্রথম বাংলাদেশের কোনো সিরিজে গ্যালারিতে বসে খেলা দেখবেন দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। স্টেডিয়াম পুরো ভরে যাওয়ার সুযোগ নেই। বিসিবি পঞ্চাশ শতাংশ আসনের টিকিট ছেড়েছে।

এটি ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য বড় সুসংবাদই। ২০২০ সালের মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজে শেষবার দর্শকেরা মাঠে বসে খেলা দেখার সুযোগ পেয়েছিলেন। এর পরপরই করোনার আক্রমণে সবকিছুই বন্ধ হয়ে যায়।

মাঠে দর্শক মানেই আনন্দ-উচ্ছ্বাস। জাতীয় পতাকা, দর্শকদের আবেগঘন চিৎকার। ঢাকার মাঠে খেলাটা যেকোনো বিদেশি দলের জন্যই কিছুটা চ্যালেঞ্জের। কাল পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মাঠে নামবে। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের পঞ্চাশ শতাংশ আসনও যদি ভরে যায়, তারপরেও সেই সংখ্যাটি বাংলাদেশের সমর্থনে এতটুকু ভাটা পড়তে দেবে না। এটা নিশ্চিত করেই বলা যায়।

পাকিস্তান ক্রিকেট দল অবশ্য মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের দর্শক-সমর্থন নিয়ে মোটেও ভাবছে না। অধিনায়ক বাবর আজম সোজা-সাপ্টাই জানিয়ে দিয়েছেন ঢাকার মাঠে সমর্থনহীন পরিবেশ নিয়ে তিনি চিন্তাই করছেন না। ভাবছেন না বাংলাদেশের দর্শক-সমর্থন নিয়েও, ‘করোনাভাইরাসের পর এখানে প্রথমবার মাঠে দর্শক প্রবেশের অনুমতি মিলেছে, এটা দারুণ ব্যাপার। দল হিসেবে আমরা উপভোগ করব।’

বাংলাদেশের দর্শকেরা দুই দলকেই সমর্থন দিতে জানে বলেই মনে করেন পাকিস্তান অধিনায়ক, ‘অনুশীলন, টিম বাসে যাতায়াতের সময় দেখেছি লোক দাঁড়িয়ে থাকতে। হাত নাড়িয়েছে, সমর্থন দিয়েছে। এখানে আমাদেরও অনেক সমর্থন আছে বলেই মনে হয়। বাংলাদেশে আমরা যখনই এসেছি, পাকিস্তান দলকেও তারা বেশ সমর্থন করেছে। এটা আমাদের বেশ ভালো লাগে।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

১৪ বছর পর ক্ষমা চাইলেন হরভজন

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রথম আসরে এস শ্রীশান্থকে থাপ্পড় মেরে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন হরভজন সিং। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.