Breaking News

বাংলাদেশের ব্যাটিং ‘তৃতীয় শ্রেণির’ ও ‘জঘন্য’

বিশ্বকাপ সুপার টুয়েলভে টানা ৫ ম্যাচ হেরে রণক্লান্ত পরাজিত সৈনিক বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হতাশার হারে শুরু। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিধ্বস্ত হয়ে শেষ বাংলাদেশের বিশ্বকাপ।

শ্রীলংকা আর ওয়েস্টইন্ডিজের বিপক্ষে ছাড়া বাকি সব ম্যাচেই ন্যূনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেনি মাহমুদউল্লাহ বাহিনী।

টানা তিনটি সিরিজ জয়ের পর বিশ্বকাপে দলের এমন হতশ্রী পারফরম্যান্সে হতাশ দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। মাহমুদউল্লাহরা কি ব্যাটিং ভুলে গেলেন? নাকি শুধু মিরপুরের মন্থর গতির উইকেটেই টুকটাক যা ব্যাট চালাতে শিখেছেন এতোদিন?

এসব নিয়ে যখন চুলচেরা বিশ্লেষণে ব্যস্ত সবাই তখন বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং পারফরম্যান্স নিয়ে কটাক্ষ করলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ওপেনার মার্ক ওয়াহ। বাংলাদেশের ব্যাটিংকে একবাক্যে ‘জঘন্য’ বলেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অসি স্পিনার জাম্পার ঘূর্ণিতে ১৫ ওভারও টিকতে পারেনি টাইগাররা। মাত্র ৭৩ রানে প্যাকেট হয়ে যায় বাংলাদেশ।

৫ উইকেট নিয়ে টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিয়ারসেরা বোলিং করেছেন জাম্পা। শুধু জাম্মার স্পিনই নয়, মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্স, জশ হ্যাজলউডদের পেস আক্রমণেও বিধ্বস্ত হয়ে মাহমুদউল্লাহ বাহিনী।

মার্ক ওয়াহের মতে অস্ট্রেলিয়া এত ভালো বোলিংও করেনি, যে কারণে এভাবে ধুঁকে ধুঁকে মাত্র ৭৩ রানেই নিঃশেষ হতে হবে।

মুশফিক-লিটনদের ব্যাটিংকে আন্তর্জাতিক মানের বলে মানতে পারছেন না এই কিংবদন্তি। মাহমুদউল্লাহ বাহিনীর ব্যাটিং তৃতীয় শ্রেণির ক্রিকেটের অপেশাদার ব্যাটিংয়ের কোনো পার্থক্যই খুঁজে পাচ্ছেন না তিনি।

ফক্স ক্রিকেটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওয়াহ বলেছেন, ‘এটি একটি জঘন্য ব্যাটিং পারফরম্যান্স ছিল। আমি জানি অস্ট্রেলিয়া ভালো বল করেছে, কিন্তু তাই বলে বাংলাদেশের ব্যাটিং দেখেও আন্তর্জাতিক মানের মনে হয়নি। বিষয়টি লজ্জাজনক। এমন মানের ব্যাটিং আপনি পার্কের তৃতীয় শ্রেণির ক্রিকেটেও দেখতে পাবেন না। ব্যাটিং থেকে কোনো সাহায্যই পায়নি বাংলাদেশ।’

ওয়াহের এমন বক্তব্যে ভেটো দেওয়ার কোনো সাহস নেই মাহমুদউল্লাহ বা বিসিবির কারো। কারণ দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৮৪ রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। ভুল শুধরে শেষ ম্যাচে উন্নতি হবে কি উল্টো আরো ১১ রান কম করলেন তারা। অসিদের বিপক্ষে ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম, অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ও শামীম পাটওয়ারিই শুধু দুই অঙ্ক স্পর্শ করতে পেরেছেন, বাকিদের স্কোর ছিল ফোন নম্বরের ডিজিটের মতো -০, ৫, ১, ০, ০, ৬, ৪, ০।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

একাদশে নয়জন বিদেশি!

টি-টোয়েন্টির জনপ্রিয়তার ঊর্ধ্বগতিতে দর্শক হারাচ্ছে ওয়ানডে ও টেস্ট। এরইমধ্যে একের পর এক ফ্র্যাঞ্চাইজ টি-টোয়েন্টি লিগের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.