Breaking News

প্রথম ১২ বলে ৬, পরে ১৩ বলে ৪৮

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে আগেই সিরিজ খুইয়েছিল স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। শনিবার সিরিজের শেষ ম্যাচেও সহজ জয় দেখছিল অস্ট্রেলিয়া। শেষ তিন ওভার তথা ১৮ বলে শ্রীলঙ্কার করতে হতো ৫৯ রান। উইকেটে ছিলেন ১২ বলে ৬ রান করা অধিনায়ক দাসুন শানাকা ও ৬ বলে ৮ রান করা চামিকা করুনারাত্নে।

স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ জয়ের জন্য ফেবারিট ছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু সেখান থেকেই পুরো হিসেব উল্টে-পাল্টে দেন লঙ্কান অধিনায়ক। প্রথম ১২ বলে মাত্র ৬ রান করা শানাকা পরের ১৩ বলে করেন ৪৮ রান! সবমিলিয়ে ২৫ বলে ৫৪ রানের তাণ্ডব চালিয়ে ১ বল আগেই দলকে ম্যাচ জেতান শানাকা।

পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করা অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিল ৫ উইকেটে ১৭৬ রান। জবাবে ১৭ ওভারের মধ্যে মাত্র ১১৮ রানে ৬ উইকেট হারালেও শানাকার ঝড়ে ১৯.৫ ওভারেই ম্যাচ জিতে নিয়েছে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা। এ জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়িয়েছে তারা।

১৭৭ রান তাড়া করতে নেমে লঙ্কান টপঅর্ডারের প্রায় সবাই ভালো শুরু পান কিন্তু কেউই বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। দানুশকা গুনাথিলাকা ১৫, পাথুম নিসাঙ্কা ২৭, চারিথ আসালাঙ্কা ২৬ ও ভানুকা রাজাপাকশে ১৭ রান করে আউট হন। এছাড়া কুশল মেন্ডিস ৬ ও ভানিন্দু হাসারাঙ্গা মাত্র ৮ রান করলে অল্পেই গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়ে তারা।

লঙ্কান টপঅর্ডারকে বেঁধে রাখা প্রথম স্পেলে তিন ওভারে এক মেইডেনসহ মাত্র তিন রান খরচায় দুই উইকেট নিয়েছিল জশ হ্যাজলউড। তাকে দিয়েই তাণ্ডবের শুরুটা করেন শানাকা। তিন ওভারে ৫৯ রানের সমীকরণে বল করতে এসে দুই চার ও দুই ছয়ের মারে ২২ রান দিয়ে বসেন হ্যাজলউড।

দলের সেরা বোলারের এমন বেধড়ক পিটুনি হজমের পর যেনো দিশেহারা হয়ে পড়েন অন্য পেসার ঝাই রিচার্ডসন ও কেন রিচার্ডসন। তবু তাদের সামনে ১২ বলে বাকি ছিল ৩৭ রান। ঝাইয়ের করা ১৯তম ওভারে দুই চার ও এক ছয়ে ১৮ রান নিতে সক্ষম হন শানাকা।

ফলে শেষ ওভারে বাকি থাকে আরও ১৯ রান। আগে দুই ওভারে ৪০ রান হওয়ার চাপে প্রথম দুইটি বলটিই ওয়াইড করেন কেন। পরের দুই বলে আসে আরও দুই রান। ফলে সমীকরণ দাঁড়ায় ৪ বলে ১৫ রানের। সেখান থেকে পরপর তিন বলে ৪, ৪ ও ৬ মেরে স্কোর সমান করে দেন লঙ্কান অধিনায়ক।

যার ফলে শেষ বলে বাকি থাকে ১ রান। সেটি আর ব্যাটে করতে হয়নি শানাকাকে। অতিরিক্ত চাপে আবারও ওয়াইড দিয়ে ম্যাচ শেষ করে দেন কেন রিচার্ডসন। দলকে জেতানো রাজকীয় ইনিংসে ৫ চার ও ৪ ছয়ের মারে ২৫ বলে ৫৪ রান করে ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতেন শানাকাই।

এর আগে শ্রীলঙ্কাকে চ্যালেঞ্জিং স্কোর ছুড়ে দেওয়ার পথে অস্ট্রেলিয়ার কেউ পঞ্চাশের দেখা পায়নি। তবে ডেভিড ওয়ার্নার ৩৩ বলে ৩৯, মার্কাস স্টয়নিস ২৩ বলে ৩৮, স্টিভেন স্মিথ ২৭ বলে ৩৭* ও অ্যারন ফিঞ্চরা ২০ বলে ২৯ রান করলে অসিরা ১৭৬ রানে পৌঁছায়। যা জয়ের জন্য যথেষ্ট প্রমাণিত হয়নি।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

হাফ-সেঞ্চুরিতে মন ভরেনি, কাউন্টিতে দুর্দান্ত শতরান মহম্মদ রিজওয়ানের

দ্বিতীয় দিনেই ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছিলেন। তবে হোভের এমন ব্যটিং স্বর্গে অর্ধশতরানে মন ভরেনি মহম্মদ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.