Breaking News
18-year-after-first-no-ball

১৮ বছরের ক্যারিয়ারে মোহাম্মদ হাফিজের প্রথম নো-বল

টান টান উত্তেজনার সেমিফাইনাল ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তানের হেরে যাওয়ার ম্যাচে এক দুর্ভাগ্যজনক প্রথমের জন্ম দিয়েছেন পাকিস্তানি অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ৷

সুপার টুয়েলভের পাঁচ ম্যাচের পাঁচটিই জিতে অপরাজিত গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে উঠেছিল পাকিস্তান৷ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষের সেমিফাইনাল ম্যাচেও বাবর আজমদেরই এগিয়ে রেখেছিলেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরা৷ কিন্তু, ম্যাথু ওয়েড ঝড়ে উড়ে যায় পাকিস্তানের ফাইনাল খেলার স্বপ্ন৷ আর সেই ম্যাচে নিজের ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মত নো-বল করে বসেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ ।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের জার্সি গায়ে ১৮ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডার৷ দীর্ঘ এই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ১৩ হাজার ৬১ টি বল করেছেন মোহাম্মদ হাফিজ । বিস্ময়করভাবে এই সময়ে একবারও নো-বল করেননি এই অফ-স্পিনার ৷ অবশেষে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষের সেমিফাইনালে অস্বস্তিকর এক উপায়ে সেই রেকর্ড হারালেন তিনি।

ঘটনাটা অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের অষ্টম ওভারের। পাকিস্তানের হয়ে সেই ওভারে বল করতে আসেন মোহাম্মদ হাফিজ। সেই ওভারের একটি বল হাফিজের হাত ফস্কে বেরিয়ে যায়। দুবার বাউন্স খেয়ে সেই বল পৌঁছায় ডেভিড ওয়ার্নারের কাছে।

অনেকটা এগিয়ে এসে সেই বলটিতে ছক্কা হাঁকিয়ে বসেন অজি এই ব্যাটার। আর সেই সুবাদে বলটিকে নো-বল হিসেবে স্বীকৃতি দিতে বাধ্য হন আম্পায়ার। সেই সাথে ২১৭৫ ওভার ধরে নিয়ন্ত্রিত বোলিং করার রেকর্ডটি হারিয়ে বসেন মোহাম্মদ হাফিজ৷

২০১৭ সালে বল বাউন্সের নিয়মকানুনে পরিবর্তন আনে আইসিসি৷ আগে দুইবার পর্যন্ত বল বাউন্স করানো বৈধ থাকলেও এরপর থেকে দুই বাউন্সেই নো-বল ডাকার বিধান করা হয়৷ অবশ্য ওয়ার্নারের এই কর্মকাণ্ড স্বাভাবিকভাবে নেননি ভারতীয় ব্যাটার গৌতম গম্ভীর। টুইটারে সেই শটের ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘ক্রিকেটীয় স্পিরিটের কী নিদারুণ প্রদর্শন। লজ্জাজনক, কী বলো অশ্বিন?

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

পারনেলের বোলিং নৈপুণ্যে প্রোটিয়াদের সিরিজ জয়

টি-টোয়েন্টি সিরিজে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর এবার আয়ারল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করল দক্ষিণ আফ্রিকা। শুক্রবার রাতে ব্রিস্টলে দ্বিতীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.