Breaking News

১০০ রানেই শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পঞ্চম ম্যাচেও অনায়াস জয় ভারতের

পঞ্চম ম্যাচেও ব্যাটিং ভরাডুবি দু’বারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। ফ্লরিডার দু’টি ম্যাচই জিতে ভারত ৪-১ ব্যবধানে সিরিজ শেষ করল ওয়েস্ট ইন্

দলের চার গুরুত্বপূর্ণ সদস্যকে বিশ্রামে রেখে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে পঞ্চম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে নামল ভারত। নেতৃত্ব দিলেন হার্দিক পাণ্ড্য। তাও জিততে পারলেন না নিকোলাস পুরানরা। ভারতের ৭ উইকেটে ১৮৮ রানের জবাবে ১৫.৪ ওভারে ১০০ রানেই গুটিয়ে গেল ক্যারিবিয়ান ইনিংস। পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে জিতল ভারত।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত ঠাসা সূচি। শনিবারই সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় রবিবারের ম্যাচে রোহিত শর্মা, ঋষভ পন্থ, সূর্যকুমার যাদব, ভুবনেশ্বর কুমারকে সাজঘরে রেখেই মাঠে নেমেছিল ভারত। অধিনায়ক, সহ-অধিনায়ককে বিশ্রাম দেওয়ায় নেতৃত্বের দায়িত্ব সামলানো হার্দিক টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন।

শনিবার না খেলা শ্রেয়স আয়ার এবং ঈশান কিশন ওপেন করলেন। ঈশান ১৩ বলে ১১ রান করে আউট হলেও উইকেটের অন্য প্রান্তে চেনা মেজাজে দেখা গেল কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ককে। শ্রেয়সের সঙ্গে জুটি বাধলেন তিন নম্বরে নামা দীপক হুডা। ৪০ বলে ৬৪ রানের আগ্রাসী এল শ্রেয়সের ব্যাট থেকে। ৮টি চার এবং ২টি ছক্কা মারলেন তিনি। দীপক ৩টি চার ২টি ছয়ের সাহায্যে করলেন ২৫ বলে ৩৮ রান। তাঁদের দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে উঠল ৭৬ রান। এ দিন রান পেলেন না সঞ্জু স্যামসন (১১ বলে ১৫), দীনেশ কার্তিক (৯ বলে ১২), অক্ষর পটেলরা (৭ বলে ৯)। তাতে অবশ্য ভারতীয় দলের ইনিংসে বড় প্রভাব পড়ল না। ২টি চার এবং ২টি ছয়ের সাহায্যে হার্দিক খেললেন ১৬ বলে ২৮ রানের ঝোড়ো ইনিংস। কুলদীপ যাদব (শূন্য) এবং আবেশ খান (১) অপরাজিত থাকেন শেষে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের মধ্যে এ দিন ভাল বোলিং করলেন ওডেন স্মিথ। ৩৩ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিলেন তিনি। তাঁর শিকার তালিকায় রয়েছেন সঞ্জু, কার্তিক এবং অক্ষর। ১টি করে উইকেট পেয়েছেন জেসন হোল্ডার, ডমিনিক ডার্কেস এবং হেডেন ওয়ালস।

জয়ের জন্য ১৮৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে এই ম্যাচে বিপর্যয়ের মুখে পড়ল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মাত্র ৩৩ রানেই ৩ উইকেট হারান পুরানরা। ওপেন করতে নেমে রান পেলেন না হোল্ডার (শূন্য)। অন্য ওপেনার শামার ব্রুকস করলেন ১৩ বলে ১৩ রান। তিন নম্বরে নামা ডেভন থমাসের অবদান ১১ বলে ১০ রান। ক্যারিবিয়ান ইনিংসকে কিছুটা টানলেন এক মাত্র চার নম্বরে নামা শিমরন হেটমেয়ার। তাঁর ব্যাট থেকে এল ৩৫ বলে ৫৬ রানের ইনিংস। মারলেন ৫টি চার এবং ৪টি ছয়। তাঁর আগ্রাসী ইনিংসই কিছুটা মুখ রক্ষা করল টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। ২২ গজে তাঁকে আর কেউই সাহায্য করতে পারলেন না। ব্যর্থ হলেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়কও। পুরান করলেন ৬ বলে ৩ রান। রভম্যান পাওয়েলও (১৩ বলে ৯ রান) রান পেলেন না। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসের ১২তম ওভারে প্রথম বল করতে এসেই পাওয়েল এবং কেমো পলকে (শূন্য) সাজঘরে ফেরত পাঠালেন রবি বিষ্ণোই। হেটমেয়ারকেও আউট করলেন তিনি।

৮৯ রানে ৭ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজের আর জয় পাওয়া সম্ভব ছিল না। ক্যারিবিয়ান ইনিংসের লেজ ছেঁটে ফেলতে বেশি সময় নিলেন না ভারতীয় বোলাররা। আয়োজকদের শেষ সাত ব্যাটারের মিলিত রান ১৩। খাতাই খুলতে পারলেন না পাঁচ ব্যাটার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস শেষ হল ১০০ রানে। ভারত জিতল ৮৮ রানে।

হার্দিক এ দিন বোলিং আক্রমণ শুরু করেন বাঁহাতি স্পিনার অক্ষরকে দিয়ে। তিনিই বিপক্ষের ইনিংসের কোমর ভেঙে দিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম তিন ব্যাটারই তাঁর শিকার। ১৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিলেন তিনি। কুলদীপ ৩ উইকেট নিলেন ১২ রানে। ভারতের সফলতম বোলার বিষ্ণোই নিলেন ১৬ রানে ৪ উইকেট। হার্দিক অবশ্য বল হাতে সফল হলেন না। ২ ওভারে ১৯ রান দিলেন এই ম্যাচের অধিনায়ক।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

‘আরে আমি কোনও ক্রেডিট নিইনি স্যার,’ দু’বলে ম্যাচ জিতিয়ে কী বললেন দীনেশ কার্তিক

দীনেশ কার্তিক মাত্র দুই বলে ১০ রান করার পর জমায়েত ছিনিয়ে নেন। সকলের নজর কেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.