Breaking News

যেখানে বাঘের ভয় সেখানে সন্ধ্যে হয়, ভারত থেকেও বেশী ভয়ে ছিল বাংলাদেশ কে নিয়ে আফ্রিকান অধিনায়কের!

ম্যাচটা আনুষ্ঠানিকভাবে যখন শেষ হলো, তখন দুই দলের মধ্যে ব্যবধান ৩৮ রানের। দক্ষিণ আফ্রিকাকে তাদের মাঠে হারানোর অপেক্ষা ২০ বছর ও ২০তম চেষ্টায় শেষ হলো বাংলাদেশের।

ম্যাচ অবশ্য এর আগেই শেষ। ৩৮ তম ওভারে রাসি ফন ডার ডুসেনের যখন হঠাৎ ‘আত্মহত্যা’র ইচ্ছে হলো, তখন পর্দা গোটানোর শুরু। আর মেহেদী হাসান মিরাজ সে পর্দা পুরোপুরিই নামানোর ব্যবস্থা করলেন। ৪৬তম ওভারে মিরাজের বলে তেড়ে এলেন মিলার, কিন্তু বলের ফ্লাইট মিস করে ক্রিজের যেখানে আটকা পড়লেন, সেখান থেকে আর ফেরার উপায় থাকে না। ম্যাচের তখনো ২৭ বল বাকি, দক্ষিণ আফ্রিকাও অলআউট হয়নি। কিন্তু ম্যাচ শেষ তখনই।

রিভিউ নিয়ে কেশব মহারাজকে এলবিডব্লু করে মাহমুদউল্লাহর উল্লাস শুধু ব্যাপারটাকে আনুষ্ঠানিক রূপ দিয়েছে। ৭ বল বাকি থাকতে ২৭৬ রানে অলআউট হয়ে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই হেরে বসেছে কদিন আগেই ভারতকে ধবল ধোলাই করা দক্ষিণ আফ্রিকা।

ঘরের মাঠে গত জানুয়ারিতে শক্তিশালী ভারতকে ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের আগে তাই ঘুরেফিরে আলোচনায় আসছে সেই ভারত সিরিজ।

আজ সিরিজ–পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা ভারত সিরিজের ছন্দটা বাংলাদেশ সিরিজে ধরে রাখার ব্যাপারে জোর দিয়েছেন। দলটা বাংলাদেশ, তাই বলে প্রোটিয়ারা যেন তামিমদের হালকাভাবে না নেন, সেটিই সতীর্থদের বারবার মনে করিয়ে দিয়েছেন।আজ অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বাভুমা বলছিলেন, ‘ভারত সিরিজটি আমাদের জন্য অনেক সফল ছিল।

ব্যাটিং, বোলিং—দুই দিকেই। দুই মাস পর আবার যখন আমরা সবাই এক হচ্ছি, তখন নিজেদের সেই সিরিজের সাফল্যগুলো মনে করিয়ে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যেন মানসিকভাবে ঠিক জায়গায় থাকি। যখন আপনি ভারতের মতো দলের বিপক্ষে খেলবেন, তখন নিজেদের চাঙা করা সহজ। কারণ, দলটা ভারত। ওদের দলে অনেক বড় বড় ক্রিকেটার আছে।’

নিজেদের আঙিনায় বাংলাদেশের বিপক্ষে পরিষ্কার ফেবারিট তকমা নিয়েই সিরিজ শুরু করবে প্রোটিয়ারা। তবু পারফরম্যান্সের মান যেন নিম্নগামী না হয়, সতীর্থদের সেই চেষ্টা করতে বলছেন বাভুমা, ‘বাংলাদেশকে ছোট না করেই বলছি, ওদের বিপক্ষে মানসিকতা ও ভালো করার চেষ্টার জায়গা থেকে আমরা যেন পিছিয়ে না থাকি, সেই চেষ্টা করতে হবে। আমরা যেন তাদের হালকাভাবে না নিই।

নিজেদের বারবার মনে করিয়ে দেওয়া, কোন কোন জিনিস আমরা ঠিক করেছি, আমাদের দল হিসেবে কোথায় আছি। প্রতিপক্ষ যে–ই হোক যেন পারফরম্যান্সটা নিজেদের মান থেকে নিচে না নামে।’ বাভুমার কথা শুনে মনে হবে, বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে তাদের লড়াইটা যেন নিজেদের সঙ্গে। বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের উজ্জীবিত রাখাকেই প্রোটিয়াদের মূল চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন অধিনায়ক,

‘আমরা ওদের খাটো করে দেখছি না। হ্যাঁ, ওদের হয়তো ভারতের মতো বড় নামের ক্রিকেটার নেই। কিন্তু আমরা হালকাভাবে নিচ্ছি না। আমরা জানি, ওদের ম্যাচ জেতানো ক্রিকেটার আছে। ওদের দলে অভিজ্ঞতা আছে। অনেকে দক্ষিণ আফ্রিকা খেলেছে, অস্ট্রেলিয়ায় খেলেছে। আশা করি ভালো একটা সিরিজ হবে।’

খেলাটা যখন ওয়ানডে, বাংলাদেশের শক্তি, অভিজ্ঞতাও কম নয়। দলের অনেকেরই দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশনে খেলার অভিজ্ঞতা আছে। গতি ও বাউন্স কীভাবে সামলাতে হয়, সেই শক্তিও আছে। পেস বোলিং বিভাগের ধারাবাহিকতাও বাংলাদেশকে আত্মবিশ্বাসী করছে। এ ব্যাপারে বাভুমার উপলব্ধি, ‘বাংলাদেশ আমাদের ভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলবে।

এটা গুরুত্বপূর্ণ যে এই প্রতিদ্বন্দ্বিতাকে কীভাবে দেখি। ওদের ফাস্ট বোলার আছে, যারা এখানকার কন্ডিশন কাজে লাগাতে পারবে। ওদের ব্যাটসম্যান আছে, যারা শর্ট বল ভালো খেলে। আমরা ওদের হালকাভাবে নেব না। আমরা জানি, ওদের হারাতে হলে আমাদের ভালো করতে হবে।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Cricvive Desk

Cricvive is a sports media company that produces original video, audio, and written content for cricvive.com and other media partners, as well as the general public and news organizations.

Check Also

সিপিএল থেকে নাম সরিয়ে নিলেন গেইল

সর্বশেষ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগে মেগা নিলাম থেকে নিজের নাম সরিয়ে নিয়েছিলেন ক্রিস গেইল। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.