Breaking News

বাবা খেলেছেন ভারত দলে, ছেলে ডাক পেয়েছেন ইংল্যান্ডের যুব দলে

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর ক্যারিয়ারটা খুব বেশি সমৃদ্ধ নয়। ভারতের হয়ে ১৪টি টেস্ট, ৫৮টি ওয়ানডে ও ১০টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন রুদ্র প্রতাপ সিং। মনে রাখার মতো খুব বেশি কিছু করতে পারেননি তিনি। খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করে ভাগ্য অন্বেষণে তিনি পাড়ি জমান ইংল্যান্ডে। লক্ষ্ণৌ থেকে উঠে আসা পেসার সেখানে ল্যাঙ্কাশায়ার কাউন্টি ক্লাব এবং ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের খণ্ডকালীন কোচের কাজ করেন।

Advertisement

ইংল্যান্ডে বসতি গাড়া রুদ্র প্রতাপের বড় ছেলে হ্যারি সিং ল্যাঙ্কাশায়ারের দ্বিতীয় দলের হয়ে ইনিংস ওপেন করেন। তরুণ এ ব্যাটসম্যান সম্প্রতি ডাক পেয়েছেন ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলে। শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দল সফর করতে যাচ্ছে ইংল্যান্ডে। আসন্ন এই সফরেই ইংল্যান্ড যুব দলের হয়ে অভিষেক হতে পারে হ্যারির।

ছেলে ইংল্যান্ড যুব দলে ডাক পাওয়ায় আনন্দিত রুদ্র প্রতাপ বলেছেন, ‘কয়েক দিন আগে আমরা ইসিবি থেকে ফোন পাই যে শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে হ্যারিকে ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলে ডাকা হয়েছে।’ ভারতীয় বংশোদ্ভূতসহ বেশ কয়েকজন দক্ষিণ এশিয়ান খেলোয়াড় আগেও ইংল্যান্ডের বয়সভিত্তিক দলে খেলেছেন।

Advertisement

রুদ্র প্রতাপ খুব ভালোভাবেই জানেন, তাঁর ছেলের জন্য সামনে আরও বড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে, ‘ব্যাপারটা সহজ নয়। (ইংল্যান্ডের হয়ে শীর্ষ পর্যায়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে হলে) আপনার কিছুটা ভাগ্য লাগবে। আর লাগবে প্রচুর রান।’

রুদ্র প্রতাপ এ ক্ষেত্রে ভারত দলের উদাহরণও টেনে এনেছেন, ‘৯০-এর দশকে আমি এমন অনেক ক্রিকেটার দেখেছি, যারা ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো করেছে, কিন্তু ভারত দলের হয়ে ব্যর্থ হয়েছে। হ্যারিতে বড় হতে হতে টেকনিক্যাল বিষয়গুলো ঠিক করে নিতে হবে। এটা সব ক্রিকেটারই করে।’

Advertisement

৫৭ বছর বয়সী রুদ্র প্রতাপের মেয়েও ল্যাঙ্কাশায়ার অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলেছেন। চিকিৎসা বিজ্ঞানে ক্যারিয়ার গড়তে পরে ক্রিকেট ছেড়ে দিয়েছেন রুদ্র প্রতাপের মেয়ে।

হ্যারি আট বছর বয়স থেকে ক্রিকেট খেলছেন। রুদ্র প্রতাপ জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে ফুটবলটাও ভালোই খেলতেন। কিন্তু বড় হওয়ার সঙ্গে ক্রিকেটে আগ্রহ বাড়তে থাকে হ্যারির। এরপর পরিবারই সিদ্ধান্ত নেয়, একমাত্র ছেলে তাঁর বাবার কোচিংয়ে ক্রিকেটার হিসেবেই বেড়ে উঠবে।’

Advertisement

হ্যারি হতে পারতেন ভালো একজন ফাস্ট বোলিং অলরাউন্ডার। কিন্তু রুদ্র প্রতাপ ছেলের ক্যারিয়ারের গতিপথ ঠিক করে দিয়েছেন অন্যভাবে। রুদ্র প্রতাপ বলেছেন, ‘সে খুব গতিতে বল করতে অভ্যস্ত। কিন্তু আমি জানি, ফাস্ট বোলিং আর ব্যাটিং ওপেন করা অনেক ধকলের কাজ। তাই আমি তাকে ব্যাটিং করার জন্যই বলেছি। এখন সে অফ স্পিন বোলিংও করে। লম্বা পথ পাড়ি দিতে হবে তাকে। এখন শুধু ছোট একটা পদক্ষেপই ফেলেছে সে।’

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

হাওয়ায় ভেসে দুরন্ত ক্যাচ নিলেন লিটন! বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না কোহলি, দেখুন ভিডিয়ো

ইতিমধ্যেই জমে উঠেছে ভারত বনাম বাংলাদেশ প্রথম একদিনের ম্যাচ। মীরপুরের শের-এ বাংলা স্টেডিয়ামে এই ম্যাচের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.