Breaking News

পাকিস্তানের হারে লাভ ভারতের

তিন ম্যাচ টেস্টে সিরিজের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানকে ১১৫ রানে হারিয়ে ১-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিল অস্ট্রেলিয়া। বাবর আজমদের এই হারে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলে উন্নতি হয়েছে ভারতের। পাকিস্তানকে টপকে টেবিলের তিনে জায়গা করে নিল রোহিত শর্মার দল। অন্যদিকে দুই ধাপ নিচে নেমে পাকিস্তানের অবস্থান এখন চারে।

পাকিস্তানের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে পা রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। রাওয়াল পিন্ডি ও করাচিতে ব্যাটারদের দাপটে সিরিজে দুই ম্যাচ ফলাফল ড্রয়ের খাতায় নাম লেখালেও, শেষ ম্যাচে অজি অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের দূরদর্শিতা বড় জয় পেয়ে সিরিজ নিজেদের করে নেয় সফরকারীরা।

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে শুক্রবার (২৫ মার্চ) অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া ৩৫১ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয়েছে ২৩৫ রানে। প্রথম ইনিংসে তাদের সংগ্রহ ছিল ২৬৮ রান। অস্ট্রেলিয়া নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩৯১ রান করার পর ৩ উইকেটে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে ২২৭ রান নিয়ে। অথচ দেড় দিন বাকি থাকতেই যখন অজি অধিনায়ক প্যাট কামিন্স দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেছিলেন, তখন সমালোচনা কম হয়নি। সাবেক তারকাদেরও কেউ কেউ তাকে আচ্ছামতো ধুয়ে দিয়েছিলেন।

করাচি টেস্টের মতো পাকিস্তান এই ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়ানোর নজির দেখালে কামিন্সের অল্প রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণার সিদ্ধান্তকে জুয়া খেলাই মনে হতো যে কারো কাছে। সকালে পাকিস্তান যেভাবে খেলেছে, অজি শিবিরে ভয় বাড়ারই কথা। পাকিস্তান যে জেতার দিকেই এগোচ্ছিল। কিন্তু পথের কাঁটা সরালেন কামিন্স নিজেই। বাবরদের দ্বিতীয় ইনিংসে গুরুত্বপূর্ণ ৩টি উইকেট নেন তিনি। নাথান লায়ন নেন ৫ উইকেট।

এদিকে অজিদের বিপক্ষে এই হারে পাকিস্তানের বড় অধঃপতন হয়েছে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট টেবিলে। অন্যদিকে বাবরদের পয়েন্ট খোয়ানোর দিনে উন্নতি করেছে ভারত। অস্ট্রেলিয়া শীর্ষ স্থান ধরে রাখলেও, পাকিস্তান নেমে গেছে দুই ধাপ। আর ভারত লাফিয়েছে একধাপ। অন্যদিকে বাবরদের টপকে দ্বিতীয় স্থান দখল করে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

৭ টেস্টে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৫২.৩৮ শতাংশ হারে ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের চারে পাকিস্তান। ৮ টেস্টে ৭৫.০০ শতাংশ হারে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে অস্ট্রেলিয়া নিজেদের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করেছে। ৫ টেস্টে ৬০.০০ শতাংশ হারে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে জায়গা করে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তিনে থাকা ভারতের সংগ্রহে রয়েছে ১১ টেস্টে ৫৮.৩৩ শতাংশ হারে ৭৭ পয়েন্ট।

৪ টেস্টে ৫০.০০ শতাংশ হারে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের পাঁচ নম্বরে জায়গা করে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। নিউজিল্যান্ড রয়েছে লিগ টেবিলের ছয় নম্বরে। ৬টি টেস্টে তাদের সংগ্রহে রয়েছে ৩৮.৮৮ শতাংশ হারে ২৮ পয়েন্ট। বাংলাদেশ রয়েছে সাতে। টাইগাররা ৪ টেস্টে ২৫.০০ শতাংশ হারে ১২ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে।

৬টি টেস্টে ২৫.০০ শতাংশ হারে ১৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলের আট নম্বরে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১১টি টেস্টে ১৩.৬৪ শতাংশ হারে ১৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করে লিগ টেবিলের একেবারে শেষে নয় নম্বরে অবস্থান করছে ইংল্যান্ড।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Cricvive Desk

Cricvive is a sports media company that produces original video, audio, and written content for cricvive.com and other media partners, as well as the general public and news organizations.

Check Also

অধিনায়ক ওয়ার্নারকে ফেরাতে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে অস্ট্রেলিয়া

বল টেম্পারিং কাণ্ডের জন্য অধিনায়কত্ব করা থেকে স্টিভ স্মিথকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল ক্রিকেট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.