Breaking News

পাকিস্তানের কাছে ১০ উইকেটে লজ্জার সেই হার! ১০ মাসে রোহিতরা এগিয়েছেন না পিছিয়েছেন?

রবিবার মাঠে নামবে ভারত এবং পাকিস্তান। একে অপরের বিরুদ্ধে নামার আগে দেখে নেওয়া যাক দুই দলের পরিসংখ্যান।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুবাইয়ের মাটিতেই ভারতকে হারতে হয়েছিল ১০ উইকেটে। সেই মাঠেই ফের মুখোমুখি দুই দল। মাঝের ১০ মাসে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ভারতের পরিসংখ্যান কী বলছে? পাকিস্তান দলই বা কেমন খেলেছে তাদের ম্যাচগুলিতে? কোন কোন ক্রিকেটারের দিকে রাখতে হবে নজর?

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১০ উইকেটে হারের ম্যাচের পর থেকে এখনও পর্যন্ত ২৮টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে ভারত। এর মধ্যে ২২টি ম্যাচে জয় পেয়েছে তারা। পাকিস্তান খেলেছে ১২টি ম্যাচ। জিতেছে ১০টি।

ভারতের এই ২৮টি ম্যাচের মধ্যে সব থেকে বেশি রান করেছেন রোহিত শর্মা। তিনি ২০টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৬২৩ রান। গড় ৩২.৭৮। সূর্যকুমার যাদব এই তালিকায় রয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে। তিনি ১৮টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৫২২ রান। গড় ৩৭.২৮। তৃতীয় স্থানে থাকা শ্রেয়স আয়ারকে যদিও এশিয়া কাপের দলে রাখা হয়নি। তিনি ১৭টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৪৭৯ রান। গড় ৩৯.৯১।

বোলারদের মধ্যে সব থেকে বেশি উইকেট নিয়েছেন ভুবনেশ্বর কুমার। এশিয়া কাপে তাঁর উপরেই ভরসা রাখছে ভারত। ২০টি ম্যাচ খেলে তিনি নিয়েছেন ২৩টি উইকেট। চোটের জন্য হর্ষল পটেল নেই। তিনি রয়েছেন দ্বিতীয় স্থানে। ১৭টি ম্যাচ খেলে ২৩টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। যুজবেন্দ্র চহাল ১৩ ম্যাচে ১৬টি উইকেট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন।

পাকিস্তানের হয়ে বিশ্বকাপের সেই ম্যাচের পর টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সব থেকে বেশি রান এসেছে মহম্মদ রিজওয়ানের ব্যাট থেকে। তিনি ১২টি ম্যাচ খেলে করেছেন ৫১৮ রান। গড় ৪৭.০৯। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বাবর আজম ১২ ম্যাচে করেছেন ৪১৪ রান। গড় ৩৪.৫০। তৃতীয় স্থানে ফখর জমন। ১১ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ২৩২ রান। গড় ২৫.৭৭। বোলারদের মধ্যে সব থেকে বেশি উইকেট মহম্মদ ওয়াসিমের। ৭ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ১৫টি উইকেট। ওয়াসিমের চোট চিন্তায় রেখেছে পাকিস্তানকে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা শাদাব খান ১০ ম্যাচে ১৪টি উইকেট নিয়েছেন। তৃতীয় স্থানে থাকা হ্যারিস রউফ ১১ ম্যাচে নিয়েছেন ১৩টি উইকেট।

শেষ ১০ মাসে দুই দলের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার ফারাক অনেকটাই। নিজেদের ম্যাচে দাপট দেখিয়েছে দুই দলই। কিন্তু এখনও পর্যন্ত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মোট ন’বার মুখোমুখি হয়েছে ভারত এবং পাকিস্তান। এর মধ্যে ছ’টি ম্যাচে জিতেছে ভারত। দু’টি ম্যাচে জিতেছে পাকিস্তান। একটি ম্যাচ টাই হয়েছে। বোল-আউটের পর সেই ম্যাচ জেতে ভারত।গত বারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ বাদ দিলে বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতকে কখনও হারাতে পারেনি পাকিস্তান। রবিবার এশিয়া কাপের লড়াইয়ে নামতে চলেছে দুই দল। সেই ম্যাচের দিকেই তাকিয়ে দুই দেশের সমর্থকরা।

কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত প্রদান করুন।

About Dipok Deb Nath

Check Also

ম্যাক্সওয়েলের দুরন্ত ফিল্ডিং! ছক্কা আটকে ৫ রান বাঁচিয়ে সকলকে চমকে দিলেন অজি তারকা

মোহালির পঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচটি খেলা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.